একটু কান্নার জন্য

একটু কান্নার জন্য করি আকুতি
যদি ঝরতো জল অঝোরে এক নদী,
মন হালকা হতো।
দেখাতে পারতাম যদি
বুকের চাপা কষ্টগুলো!
কেমন মুখ বুজে সই
যত আঘাত – সংহারি…
মন হালকা হতো।
ভালোবাসতে পারতাম যদি
নিঃশেষ উপেক্ষা,
দিন শেষের মন উথালি-পাথালি…
মন হালকা হতো।
আঁকতে পারতাম যদি
বিস্মৃতির ধোঁয়াশা!
যন্ত্রণার নীলে মিশতো
উদাসীনের ধূসরতা…
মন হালকা হতো।
যদি কাঁদতে পারতাম
এক বুক হাপুস নয়ন –
সমর্পনে নির্বাপন অন্তর্দহন…
মন হালকা হতো!

কিন্তু এ চোখ অশ্রুবিহীন
আঘাতে আঘাতে পাথর – যেন অনুভূতিহীন!
বুক ফাটে তবু চোখ ফাটে না
ভরা বেদনায় রুদ্ধ এ কণ্ঠ
তবুও জল গড়ায় না!

আহ, কাঁদতে পারতাম যদি
দু’কূল ছাপাতো মৌনতায় স্তব্ধ
পাথরের হৃদয় নদী…
মন হালকা হতো!

একটু কান্নার জন্য!

একটু কান্নার জন্য করি আকুতি
যদি ঝরতো জল অঝোরে এক নদী,
মন হালকা হতো।
দেখাতে পারতাম যদি
বুকের চাপা কষ্টগুলো!
কেমন মুখ বুজে সই
যত আঘাত – সংহারি…
মন হালকা হতো।
ভালোবাসতে পারতাম যদি
নিঃশেষ উপেক্ষা,
দিন শেষের মন উথালি-পাথালি…
মন হালকা হতো।
আঁকতে পারতাম যদি
বিস্মৃতির ধোঁয়াশা!
যন্ত্রণার নীলে মিশতো
উদাসীনের ধূসরতা…
মন হালকা হতো।
যদি কাঁদতে পারতাম
এক বুক হাপুস নয়ন –
সমর্পনে নির্বাপন অন্তর্দহন…
মন হালকা হতো!

কিন্তু এ চোখ অশ্রুবিহীন
আঘাতে আঘাতে পাথর – যেন অনুভূতিহীন!
বুক ফাটে তবু চোখ ফাটে না
ভরা বেদনায় রুদ্ধ এ কণ্ঠ
তবুও জল গড়ায় না!

আহ, কাঁদতে পারতাম যদি
দু’কূল ছাপাতো মৌনতায় স্তব্ধ
পাথরের হৃদয় নদী…
মন হালকা হতো!

প্রথম প্রকাশঃ প্রজন্ম ফোরাম (মার্চ ২০১৩)