ইশ্বর, আমার কিছু কথা শুনবে কি?

ইশ্বর, আমার যত শূন্যতা গলিয়ে
একটা চাঁদ গড়ে দেবে?
যে চাঁদের অগোছালো জোছনায়
মিশে থাকবে আমার হাহাকার!

ইশ্বর, আমার যত ভালোমানুষিতার বিনিময়ে
এটুকু কি করবে?
ঝুলিয়ে দেবে সে চাঁদ
বৃষ্টি ধোয়া ব্যথা-গন্ধী রাতে
তার আয়ত আঁখির মাপে?
হয়তো সে তাকিয়েই স্তব্ধ হয়ে যাবে..
হাজার রাত্রির দীর্ঘশ্বাস ঘন হয়ে বসবে তার বুকে।

ইশ্বর, এতটুকু কি পারবে না?
বিরহ জ্বালা মিশিয়ে দেবে সে চাঁদনীর মায়ায়।
আর আমার বিক্ষত হৃদয় বসিয়ে দেবে চাঁদের মুখে!
হয়তো সে আঁখি মেলেই অশ্রুসজল হবে।
আমার জন্য কোন্‌ অজানা কোণে অনাবিষ্কৃত
ভালোবাসাটুকু উড়িয়ে দেবে বিষন্ন বাতাসে।

ইশ্বর, পারো কি এতটুকু সহৃদয় হতে
আমার বুভুক্ষু হৃদয়ের প্রতীক্ষিত চুম্বন
অনবধানে এঁকে দাও ওর ওষ্ঠের আঙ্গিনায়।

ইশ্বর, আমার যত অপ্রাপ্তি জমিয়ে
একটা চাঁদ গড়ে দাও না?
যে চাঁদ অনাদিকাল ওকে কাঁদিয়ে যাবে
নিভৃতে, আমার কথা ভেবে ভেবে।